Bulletin_March_2012
   সম্পাদকীয়
   প্রচ্ছদ-কাহিনী
   যুদ্ধাপরাধ
   বিশেষ প্রতিবেদন
   আইন-আদালত
   আন্তর্জাতিক
   শিশু অধিকার
   পরিবেশ
 
 

 

যোগাযোগ

সম্পাদক, বুলেটিন
আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক)
৭/১৭ ব্লক-বি, লালমাটিয়া
ঢাকা-১২০৭

ইমেইল-
ask@citechco.net,
publication@askbd.org

   
   
   
   

... .      
           

সম্পাদকীয়

 

আমাদের এবারের প্রচ্ছদ কাহিনী ‘পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে গণতন্ত্র- প্রসঙ্গ জাহাঙ্গীরনগর’। লিখেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সায়েমা খাতুন। গত কয়েক মাস জুড়ে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, বিশেষ করে জাহাঙ্গীরনগর ও বুয়েটের অচলাবস্থা সর্বমহলে উৎকণ্ঠার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। আপাতত এর সুরাহা হলেও এ অসহনীয় অবস্থার কারণ খোঁজা হয়েছে এ নিবন্ধে। সেই সঙ্গে সঙ্কট উৎরানোর কিছু দিক-নির্দেশনা। দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ, মুক্তবুদ্ধিচর্চাস্থল অত্যন্ত দুঃখজনক হলেও সত্যি যে, বহুদিন ধরে রাজনৈতিক দলের ক্যাডারভিত্তিক আগ্রাসনের শিকার। খুন-জখম, সরকারি ও বিরোধী দলের পাল্টাপাল্টি হামলা-উচ্ছেদ- এসব বছরের পর বছর চলতে পারে না। কোনো বিদ্যা অর্জনের ক্ষেত্রে তো নয়ই। আমরা এর আশু সমাধান চাই। সরকারের তাঁবেদারি প্রতিষ্ঠানে পরিণত না করে, দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে পূর্ণ মর্যাদায় স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে প্রতিষ্ঠিত করা হোক- এ আমাদের জোরালো দাবি।
এবারের বুলেটিনের উল্লেখযোগ্য পরিবেশনা আন্তর্জাতিক অপরাধ আইন বিশেষজ্ঞ রিচার্ড রজার্সের ‘আন্তর্জাতিক অপরাধ এবং বাংলাদেশের ট্রাইব্যুনাল’ শীর্ষক রচনা। এটি মূলত মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ১৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে মি. রজার্সের পঠিত বক্তব্য। যা ইংরেজি থেকে বাংলায় অনুবাদ করে এখানে পত্রস্থ করা হয়েছে। পাশাপাশি রয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের একটি সাড়া জাগানো রায়। যেখানে যুদ্ধাপরাধীদের সহযোগিতা করার অপরাধে লাইবেরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্টকে পঞ্চাশ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। এ অধ্যায়ের একটি বিশেষ আয়োজন- চলমান বাংলাদেশের ট্রাইব্যুনাল সম্পর্কে সাংবাদিক উদিসা ইসলামের ‘ট্রাইব্যুনাল সরেজমিন’। ট্রাইব্যুনালের আইনজীবীদের দক্ষতা, ভূমিকা নিয়ে নিরাশ হওয়ার মতো যথেষ্ট কারণ থাকলেও আমরা আশা করবো, তাঁরা তাঁদের গুরুদায়িত্ব সম্পর্কে সজাগ থাকবেন এবং কর্মতৎপরতা বাড়িয়ে বিচার প্রক্রিয়ায় গতিসঞ্চার করবেন। ’৭১-এর যুদ্ধাপরাধের বিচারের স্বপ্নপূরণ আজ অনেকটাই তাঁদের হাতে।
গুপ্তহত্যা, গুম, র‌্যাবের ‘ক্রসফায়ার’, পুলিশের নির্যাতন- আজ নিত্যদিনের ঘটনা। তাই এ সংক্রান্ত পাহাড় সমান খবর থেকে দু’চারটিই কেবল ত্রৈমাসিক বুলেটিনে ছাপানো সম্ভব হয়। সেক্ষেত্রেও গুরুত্ব পায় আসক-এর সরেজমিন তদন্ত প্রতিবেদন বা মধ্যস্থতাকারী বা প্রতিবাদকারী হিসেবে আসক-এর সরাসরি অংশগ্রহণমূলক কোনো ঘটনা। এ রকমই দুটি রচনা রয়েছে ‘বিশেষ প্রতিবেদন’ অধ্যায়ে। বিচার চাইতে এসে পুলিশের নির্যাতন, আটকের শিকার হওয়া মেয়েটির, আসক-এর নির্বাহী পরিচালকের প্রত্যক্ষ হস্তক্ষেপে থানা থেকে ছাড়া পাওয়ার ঘটনা বর্ণিত হয়েছে সুলতানা কামালের ‘পুলিশও আইন এবং জবাবদিহির ঊর্ধ্বে নয়’ রচনাটিতে। অন্যটি র‌্যাবের গুলিতে নরসিংদীতে ছয়জনের মৃত্যু। ভাবতে গেলে গা শিউরে ওঠে- মাত্র চল্লিশ হাজার টাকা ডাকাতির অভিযোগে এ বীভৎস হত্যাযজ্ঞ! এমন নৃশংস ঘটনাও কি বরাবরের মতো বিচারের ঊর্ধ্বেই থেকে যাবে? সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কি কোনোভাবে এর দায় এড়াতে পারবেন? এ প্রশ্নগুলো কর্তৃপক্ষকে ভাবতে বলি।

উপদেষ্টা সম্পাদক: হামিদা হোসেন, সুলতানা কামাল, এডভোকেট ইদ্রিসুর রহমান * সম্পাদক: শাহীন আখতার
আইনগত সম্পাদনা: আবু ওবায়দুর রহমান * প্রকাশনা সহযোগী: কানিজ খাদিজা সুরভী, মাবরুক মোহাম্মদ
প্রচ্ছদ: মনন মোর্শেদ * অঙ্গসজ্জা: অনিল চন্দ্র মন্ডল, হেলাল উদ্দিন সোহান * কম্পিউটার কম্পোজ: মোহাম্মদ মোশারফ হোসেন, রিজওয়ানুল হক * ফটোগ্রাফ: আসক, প্রথম আলো, ইন্টারনেট য় মুদ্রক: সাহিত্য প্রকাশ